কুরআন প্রতিযোগিতায় ৪টি দেশে যাচ্ছে তারা

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ধর্ম মন্ত্রনালয়ের অধিনে ইসলামি ফাউন্ডেশন কর্তৃক চারটি দেশের কুরআন প্রতিযোগিতার জন্য বাংলাদেশের সেরা হাফেজ বাছাই পর্বে ৪ জন ছাত্র প্রতিনিধি হিসেবে সুযোগ পায়। তারা শায়েখ হাফেজ ক্বারী নেছার আহমাদ আন নাছিরী পরিচালিত দনিয়া/সাইনবোর্ড যাত্রাবাড়ীস্থ ঢাকার একাধিকবার বিশ্বসেরা পুরস্কারপ্রাপ্ত হিফজ মাদরাসা মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদরাসার ছাত্র।

উল্লেখ্য যে, গত বছরও এই মাদরাসার ছাত্র হাফেজ তরিকুল ইসলাম দুবায়ে ১০৩ টি দেশকে হারিয়ে পুরস্কার হিসাবে বাংলাদেশি টাকায় ৬০ লক্ষ টাকা, আন্তর্জাতিক সনদ ও দুবাইয়ের শাসক শেখ আহমাদ বিন রাশেদ আল মাখতুম এর কাছ থেকে সম্মাননা গ্রহন করেন। ১০৩ টি দেশকে পরাজিত করে বাংলাদেশের জন্য একটি গৌরবময় ইতিহাস সৃষ্টি করেছিল। বরাবরের ন্যায় এবারও ৪টি দেশে ৪ জন বাংলাদেশী প্রতিযোগী এ বিজয় অক্ষুন্ন রাখবে বলে আমাদের বিশ্বাস ইনশাআল্লাহ।

এছাড়াও এযাবত অত্র মাদরাসার ছাত্ররা সৌদিআরবে ৭ বার , মিশরে ৩ বার, আলজেরিয়া ২ বার, লিবিয়া ১ বার, ইরান ৫ বার, কুয়েত ২ বার, কাতার ১ বার, গাম্বিয়া ১ বার, বাহরাইন ২ বার, দুবাই ৩ বার ও জর্দানে ৬ বার বিশ্ব কুরআন প্রতিযোগিতায় ১ম, ২য়, ৩য় স্থান অধিকার করে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের সম্মানকে আলোকিত করেছে এবং জাতীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত এন টিভি, বাংলাভিশন, আর টিভি, মাছরাঙা টিভিসহ বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে মাহে রমজানে প্রচারিত হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় একাধিকবার ১ম, ২য়, ৩য় স্থান অর্জনকরে আসছে নিয়মিত। বাংলাদেশের লাল-সবুজের পতাকাকে বিশ্ব দরবারে সমুজ্জল করায় সৌদি সরকারের পাশাপাশি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এবং দুবায়ের শাসখগণ শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এ্যাওয়ার্ড তুলে দেন বাংলাদেশে অত্যাধুনিক হিফজ মাদরাসার রূপকার শায়েখ হাফেজ ক্বারী নেছার আহমাদ আন নাছিরীর ও তার বিশ্ববিজয়ী হাফেজ ছাত্রদের হাতে।

আবারও গৌরবময় অর্জন ছিনিয়ে আনতে হাফেজ ত্বরিকুল ইসলাম (কুয়েত) হাফেজ ফারহান হাবিব আওলাদ (তুরস্ক) হাফেজ গাজী আব্দুল্লাহ (জর্ডান) হাফেজ এহসানুল্লাহ (ইরান)তারা সবাই দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থী।

You might also like

Leave a Reply

শিরোনাম